Sambad Samakal

Kunal Ghosh: বিজেপি নেতার মাদক যোগ! শুভেন্দু সুকান্তকে কী প্রশ্ন কুণালের?

Jan 14, 2024 @ 1:13 am
Kunal Ghosh: বিজেপি নেতার মাদক যোগ! শুভেন্দু সুকান্তকে কী প্রশ্ন কুণালের?

মাদক যোগে চাপে পড়ল বঙ্গ বিজেপি। সাঁকরাইলে বিজেপির পঞ্চায়েত সদস্যার বাড়ি থেকে ৪২ কেজি গাঁজা উদ্ধারের পর সুর চড়ালেন রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ। মাদক ব্যবসার অভিযোগে শনিবার রাতে হাওড়া সিটি পুলিশ পঞ্চায়েতের সদস্যা রূপা রায়ের স্বামী, তথা কান্দুয়া পঞ্চায়েতের বিজেপি নেতা নিমাই রায়কে গ্রেফতারও করেছে। আর সেই নিমাই রায়ের সঙ্গে শুভেন্দু অধিকারী, সুকান্ত মজুমদার ও দিলীপ ঘোষের ঘনিষ্ঠ বৃত্তের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় সামনে এনেছেন কুণাল। মাদক কারবারে অভিযুক্ত কীভাবে রাজ্য বিজেপির শীর্ষ নেতাদের ঘনিষ্ঠ বৃত্তে প্রশ্ন তুলেছেন সে বিষয়ে।

ফেসবুক পোস্টে কুণাল ঘোষ লিখেছেন, “বিজেপি এবং অপরাধের মধ্যে সম্পর্কের উন্মোচন! সাঁকরাইল থেকে বিজেপির পঞ্চায়েত নেতাকে ৪২ কেজি মাদক দ্রব্যসহ হাতেনাতে ধরা হল! শুভেন্দু অধিকারী এবং সুকান্ত মজুমদার, যাঁরা ন্যায়বিচার চেয়ে সারাদিন গলা ফাটাচ্ছেন, তাঁরা কী এবার বলবেন আপনাদের সঙ্গে মাদক ব্যবসায়ীদের বন্ধুত্ব কীভাবে?”

উল্লেখ্য, হাওড়ার সাঁকরাইলের কান্দুয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্যা রূপা রায়ের নবঘরা সর্দার পাড়ার বাড়িতে শনিবার হাওড়া সিটি পুলিশ হানা দেয়। সেই তল্লাশি অভিযানে মোট ৪২ কেজি গাঁজা বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ। গ্রেফতার করা হয় রূপার স্বামী নিমাই রায় ও দুই ‘সাগরেদ’ সত্যদেও সাহানি এবং আনোয়ারা বেগমকে। তদন্তকারীদের দাবি, ওড়িশা থেকে ছোট ছোট লরিতে সাঁকরাইলের বাড়িতে গাঁজা নিয়ে আসেন নিমাই। সেখান থেকে কলকাতা-সহ বিভিন্ন জেলায় গাঁজা পৌঁছে দেওয়া হয়। সত্যদেও এবং আনোয়ারা দু’জনেই এই ক্যারিয়ার হিসাবে কাজ করতেন। ধৃতদের বিরুদ্ধে মাদক বিরোধী আইনে মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

Related Articles